THE SCHOLARS FORUM

আমাদের কথা

বৃত্তি প্রকল্প: শিক্ষার নৈতিক উৎকর্ষ সাধন এবং প্রতিভা ও মেধার নান্দনিক পরিশীলনের দৃঢ় প্রত্যয়ে ১৯৯৫ সালে “দ্যা স্কলারস ফোরাম”-এর বৃত্তি প্রকল্পের যাত্রা শুরু হয়। স্কলারস ফোরাম লেখাপড়ায় শিক্ষার্থীদের প্রতিযোগি করে গড়ে তোলা এবং আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে প্রতিবছর ৩য়, ৪র্থ, ৫ম, ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম ও ৯ম শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বৃত্তি পরীক্ষা নিয়ে আসছে। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদেরকে ফোরামের পক্ষ থেকে এককালীন এবং কিস্তিতে এক বছরের জন্য বৃত্তি প্রদান, সংবর্ধনা ও সনদ প্রদান করা হয়। জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রথম কিস্তির বৃত্তি প্রদান করা হয়। কোচিং প্রকল্প: বিশ্বায়নের এই যুগে শিক্ষার মান বৃদ্ধি ও সমৃদ্ধিকরণের প্রয়াসে, সৃজনশীলতা এবং মেধা ও মননের সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে স্কলারস কোচিং প্রকল্প। শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণের গণ্ডি পেরিয়ে মেধাবী জাতি গঠনের মানসে ব্রতী এই প্রকল্পটি নিরন্তরভাবে তাদের কর্মতৎপরতা চালাচ্ছে যা সর্বসাধারণের মাঝে ব্যাপক সমাদৃত হয়েছে। স্বাস্থ্য প্রকল্প: “দ্যা স্কলারস ফোরাম” ছাত্র-ছাত্রীদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করার জন্য বিভিন্ন দিবস পালনের পাশাপাশি স্কুল ছাত্র-ছাত্রীদের স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্লাড গ্র“পিং, মেডিকেল চেকআপ, চক্ষুশিবির স্থাপন, রক্তদান কর্মসূচী ও চিকিৎসা সেবা প্রদান ইত্যাদি কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। ক্রীড়া প্রকল্প: ফোরাম পড়াশুনার পাশাপাশি স্বাস্থ্য গঠন ও শরীরচর্চার জন্য বিভিন্ন জাতীয় দিবসে ফুটবল ও ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এবং মৌসুমী খেলাধুলাসহ নানাবিধ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। সাহিত্য-সাংস্কৃতিক প্রকল্প: ফোরামের পক্ষ থেকে ছাত্র-ছাত্রীদের সুপ্ত প্রতিভা ও সৃজনশীল সংস্কৃতির বিকাশ এবং মননশীল সাহিত্য অধ্যয়নের সুযোগ সৃষ্টির জন্য সমৃদ্ধ পাঠাগার স্থাপন ও বিভিন্ন জাতীয় দিবসে বিতর্ক, আবৃত্তি, গান ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। যোগ্য মানব সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্প: মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশুনায় আগ্রহী করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে ফোরামের রয়েছে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কোর্স। মেধাবী ও দরিদ্র ছাত্রদের সর্বনিম্নœ কোর্স ফি এর মাধ্যমে বিভিন্ন কারিগরি প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। এছাড়া স্কুল ছাত্রদের নিয় ঈধৎববৎ ফবংরমহ ঢ়ৎড়মৎধস, ঝশরষষ ফবাবষড়ঢ়সবহঃ পড়ঁৎংব সহ পড়াশুনায় সহায়ক বিভিন্ন ওয়ার্কশপ করা হয়। কম্পিউটার ও ভাষা শিক্ষা প্রকল্প: যুগের চাহিদার আলোকে ছাত্র-ছাত্রীদের কম্পিউটার ও ভাষা শিক্ষার বিকল্প নেই। ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশুনার পাশাপাশি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সাথে পরিচিত করার লক্ষ্যে ফোরামের রয়েছে বিশেষ পরিকল্পনা। এর অংশ হিসেবে নামমাত্র কোর্স ফি-এর মাধ্যমে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কোর্স, ইংরেজী ভাষা শিক্ষা কোর্স, সাংবাদিক কর্মশালা ও তুলি প্রশিক্ষণ কোর্স উল্লেখযোগ্য। দরিদ্র তহবিল প্রকল্প: আধুনিক শিক্ষার উন্নয়নে গরিব মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মেধার বিকাশ সাধনে ফোরামের রয়েছে দরিদ্র তহবিল প্রকল্প। এ প্রকল্পের আওতায় গরিব ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে এককালীন সহযোগিতা, ভর্তি সহযোগিতা ও শিক্ষা সামগ্রী প্রদান করা হয়ে থাকে। মেধার সঠিক লালন ও যথার্থ মূল্যায়নের মধ্য দিয়েই তৈরি হবে আগামী দিনের জাতীয় নেতৃত্ব। দ্যা স্কলারস ফোরামের উল্লেখিত কার্যক্রম বাস্তবায়নে ছাত্র, শিক্ষক, অভিভাবক ও শুভানুধ্যায়ী সকলেই আন্তরিকতাপূর্ণ সহযোগিতা অব্যাহত রাখবেন, এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

Read More

আমাদের কার্যক্রম

রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত নিয়মাবলী: ঢাকা মহানগরীর যে কোন স্কুল ও মাদরাসার ৩য়, ৪র্থ, ৫ম, ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম ও ৯ম শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীরা এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে।বৃত্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীকে নির্ধারিত রেজিস্ট্রেশন ফি প্রদান পূর্বক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ অথবা সরাসরি ফোরামের অফিস বা মনোনীত প্রতিনিধি হতে রেজিস্ট্রেশন ফরম সংগ্রহ করে যথাযথভাবে পূরণ করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান ও অভিভাবকের অনুমোদন নিয়ে ১৫ অক্টোবর ২০১৫ এর মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের নিকট/স্কুল প্রতিনিধি অথবা সরাসরি ফোরামের অফিসে ফরমের সাথে দুই কপি পাসপোর্ট ও এক কপি স্ট্যাম্প সাইজের ছবি সহ জমা দিতে হবে।অসম্পূর্ণ অথবা ভুল তথ্য সম্পন্ন রেজিস্ট্রেশন ফরম বাতিল বলে গণ্য হবে।বৃত্তি পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন ফি : ৩য়-৫ম : ২৩০/- ৬ষ্ঠ-৯ম : ২৮০/-পরীক্ষা সংক্রান্ত নিয়মাবলী:স্কুলের ৩য়, ৪র্থ,৫ম,৬ষ্ঠ,৭ম, ৮ম শ্রেণির ক্ষেত্রে বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ বিজ্ঞান এই চার বিষয়ে এবং ৯ম শ্রেণির ক্ষেত্রে বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞানের উপর পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে।মাদরাসার ৩য়, ৪র্থ, ৫ম, ৬ষ্ঠ,৭ম, ৮ম, ৯ম শ্রেণির ক্ষেত্রে বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও আরবি এই চার বিষয়ে পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে।স্কুলের ৯ম শ্রেণির ক্ষেত্রে সাধারণ গণিতে ৬০ এবং সাধারণ বিজ্ঞানের পরিবর্তে সাধারণ জ্ঞানের ৪০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ইংরেজী ও গণিতের উত্তর প্রদানের জন্য পৃথক খাতা ব্যবহার করতে হবে। নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের উত্তর নির্ধারিত শিটে দিতে হবে।বৃত্তি পরীক্ষা সকাল ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার সময় : ৩ ঘণ্টা (নৈর্ব্যক্তিক-১ঘণ্টা, রচনামূলক-২ঘণ্টা) পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ : ৩০ অক্টোবর ২০১৫ ইং। পরীক্ষার কেন্দ্র প্রবেশপত্রে উল্লেখ থাকবে। পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবার অন্তত ৩ দিন পূর্বে স্কুল কর্তৃপক্ষের নিকট থেকে প্রবেশপত্র গ্রহণ করে পরীক্ষার চূড়ান্ত তারিখ, সময় ও স্থান জেনে নিতে হবে। * ফলাফল “দ্যা স্কলারস ফোরাম” এর ওয়েবসাইট ও দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশসহ অফিসে টানানো, স্কুলে পাঠানো এবং বৃত্তি প্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীদের নিকট সরাসরি/ডাকযোগে পৌঁছানো হবে।

ফেইসবুকে আমরা

প্রয়জনীয় লিংক

User Login

Registration

Registration